-22nd Anniversary 2012

Posted on Posted in 2012, Anniversary, Program Production, Program Solo

প্রতিষ্ঠার বাইশ বছর ২০১২

“আমাদের প্রত্যয় আমাদের স্বস্তি
মানবতা-বিরোধী অপ্রাধের শাস্তি”

স্থানঃ শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়েতন, কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরী, শাহবাগ, ঢাকা
তারিখঃ সোমবার, জানুয়ারি ০৩, ২০১২
সময়ঃ সন্ধ্যা ৬ঃ০০ টা
আয়োজকঃ মুক্তধারা আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্র


মুক্তধারার কথাঃ

“সীমাহারা মুক্তির মাঝে দাঁড়াইয়া মানব
বল দেখি ‘আমার মানুষ ধর্ম’।”

সকল মুক্তিকামী মানুষের কথা বলতে, সাম্প্রদায়িকতাসহ সকল সামাজিক, রাজচৈতিক কূপমণ্ডুকতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে আবৃত্তিকে আশ্রয় করে মুক্তিধারার পথচলা শুরু। আজ প্রতিষ্ঠার বাইশ বছর। দীর্ঘসময় না হলেও পথ ছিল না সুগম। দুঃসময়ের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে আলোর খঁওজে এগিয়ে যাবার জন্য যারা আমাদের সাহস, শক্তি ও প্রেরণা দিয়েছেন তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। বিনম্র শ্রদ্ধার সাথে দ্মরন করছি এবং কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি সকল বরেণ্য ব্যদতিত্বদের যাদের পদচিহ্নে ধন্য হয়েছে মুক্তধারার বিগত প্রতিষ্ঠা উতসবগুলো। মুক্তধারার সকল শুভানুধ্যায়িদের জানাই আন্তরিক অভিবাদন।

সংস্কৃতি চর্চা মানুষের অন্তর-প্রেরণা। মুক্তধারা সাংগঠনিক চর্চা ও সততায় বিশ্বাসী। সংঘবদ্ধ সাংস্কৃতিক আন্দোলনে আমাদের অস্ত্র আবৃত্তি। মাতৃভাষা বাংলাকে প্রাণের চেয়েও প্রিয় মনেকরি আমরা। ভালবাসি দেশ, দেশের মানুষ তথা পৃথিবীর সকল মানুষকে। বাংলাদেশের ভূখণ্ডে বসবাসরত সকল নৃগোষ্ঠির সংস্কৃতি আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্য। মানুষে মানুষে ভ্রাতৃত্ব ও সততাবোধের প্রতিষ্ঠায় আমরা ব্রতী। আমরা অসাম্প্রদায়ীক কুসংস্কার বিবর্জিত সুন্দর সমাজের স্বপ্ন দেখি। প্রত্যাশা করি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও শাস্তি। আমরা পৃথিবীর সকল মুক্তিকামী মানুষের পক্ষে, শান্তির পক্ষে। জয় হোক আবৃত্তিশিল্পের, জয় হোক মানুষের।


প্রধান অতিথিঃ ডাঃ সারওয়ার আলী, ট্রাস্টি, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর
বিশেষ অতিথিঃ

  • গোলাম কুদ্দুছ, সহ-সভাপতি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট
  • হাসান আরিফ, সাধারণ সম্পাদক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট
  • আহ্‌কাম উল্লাহ্‌, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ

সভাপতিঃ আনিসা জামান চাঁপা
আবৃত্তি প্রযোজনাঃ নক্ষত্রের মৃত্যু
গ্রন্থনা ও নির্দেশনাঃ মাহমুদা সিদ্দিকা সুমি
স্বরক্ষেপনঃ

  • রফিকুল ইসলাম
  • মাহমুদা সিদ্দিকা সুমি
  • শাহানা শিল্পী
  • শায়লা লাবনী
  • সংগীতা সাহা
  • হিমেল অনার্য

আমন্ত্রিত আবৃত্তি শিল্পীঃ

  • আশরাফুল আলাম
  • কাজী আরিফ
  • ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়
  • বেলায়েত হোসেন
  • লায়লা আফরোজ
  • গোলাম সারোয়ার
  • শিমুল মুস্তাফা
  • মাহিদুল ইসলাম
  • অনন্যা লাবনী পুতুল
  • নায়লা তারান্নুম চৌধুরী কাকলী
  • ঝর্ণা সরকার

আবহসঙ্গীতঃ কমল খালিদ
আলোক পরিকল্পনাঃ অসীম আহমেদ
মঞ্চ পরিকল্পনাঃ নাসিমা খান বকুল
পোষাক পরিকল্পনাঃ মাহমুদা সিদ্দিকা সুমি
আলোক সরবরাহঃ স্পট লাইট
শব্দঃ সমীর সাউন্ড

কৃতজ্ঞতাঃ

  • ডালিয়া আফরোজ
  • ইফ্‌ফাত নাসরিন
  • অমর ফারুক
  • প্রদীপ গাব্রিয়েল স্কু
  • সামিউর রহমান নয়ন

“আছে দুঃখ, আছে মৃত্যু, বিরহদহন লাগে।
তবুও শান্তি, তবুও আনন্দ, তবুও অনন্ত জাগে।”

Muktodhara Sume
মাহমুদা সিদ্দিকা সুমি

জন্ম-মৃত্যু আর আনন্দ-দুঃখের এই পৃথিবীতে ছোট বেলা থেকে শুনেছি, মৃত জনেরা আকাশে নক্ষত্রের মত জ্বলজ্বল করে জেগে থাকে। আবার, এও শুনেছি, অপঘাতে যারা মরে যায় তারা বার বার ফিরে আসে আমাদের এই নিষ্ঠুর ভূমণ্ডলে, আর জানায় তাদের সেই নিষ্ঠুর বেদনাক্লীষ্ট মুহূর্তের কথা। এই মীথকে কেন্দ্র করেই আমার এই সামান্য কথার গাঁথুনি। এই প্রচেষ্টাকে সফল করার প্রয়াসে অনেক জানা-অজানা কবিদের কবিতার সংকলনের মাধ্যমে প্রকাশ করেছি আমাদের অনুভূতির কথা, ধিক্কারের কথা আর বিবেকের কথা; কেননা আমি মনে করি, সামাজিক অবক্ষয় হলে বিবেকের কাছে আমরাও কোন না কোন ভাবে দায়বদ্ধ হয়ে পরি।

মুক্তধারা আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের প্রত্যেক সদস্যের কাছে আমি চির কৃতজ্ঞ কারণ তারা প্রত্যেকেই এই অনুষ্ঠানটি সফল করার বিষয়ে সুচিন্তিত পরামর্শ দিয়েছেন।

পরিশেষে, যারা এই অনুষ্ঠান দেখবেন এবং লেখাটি পড়বেন তাদের সবাইকে আমি আহ্বান জানাতে চাই – আসুন আমরা নিজে বাঁচি এবং পরস্পরকে বাঁচতে সাহায্য করি, কেননা, “বিপরীত সময়ে বেঁচে থাকার নামি তো জীবন”।

মাহমুদা সিদ্দিকা সুমি
গ্রন্থনা ও নির্দেশক